অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন...

al-ihsan.net
বাংলা | English

বিদেশের খবর - ১৭ জানুয়ারী, ২০১৭
 
নোট বাতিল সমর্থনযোগ্য নয় -অমর্ত্য সেন
আল ইহসান ডেস্ক:

কালো অর্থ কখনোই ভারতের অর্থনীতির জন্য বড় সমস্যা ছিল না জানিয়ে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন বলেছে, নোট বাতিলের এই সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে নেয়া উচিত ছিল। ৬ শতাংশ কালো অর্থের জন্য ৮৬ শতাংশ নোট বাতিলকে কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না। অমর্ত্য সেন বলেছে, নোট বাতিলের এই সিদ্ধান্ত কালো অর্থ খুঁজে বের করতে ব্যর্থ হয়েছে। গত ইয়াওমুছ ছুলাছা (মঙ্গলবার) এক সাক্ষাৎকারে অমর্ত্য সেন এমন মন্তব্য করেন। অর্মত্য বলেছে, নোট বাতিলের জেরে ভুগছে দেশের সাধারণ মানুষ। অথচ সেই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল একতরফাভাবে। অমর্ত্য সেনের দাবি, বিষয়টি নিয়ে জোরালো প্রতিবাদ করতে বিরোধীদের যেভাবে একজোট হতে হত, তা তারা পারেনি। তাই গত দু’মাস এত দুর্ভোগের পরেও অনেক মানুষ যে এখনো অন্ধভাবে নোট বাতিলের পাশে দাঁড়াচ্ছে তার কিছুটা দায় বিরোধীদেরও। একই সঙ্গে তার আশঙ্কা, যত দিনে এই ঘোর কাটবে, উত্তরপ্রদেশ সমেত পাঁচ রাজ্যে ভোট তত দিনে সারা। কালো টাকা, জাল নোট, কিংবা ডিজিটাল লেনদেনের প্রসার- কোনো যুক্তিই ওই সিদ্ধান্তের পক্ষে ধোপে টেকে না বলে মনে কওে সে। বরং নোট বাতিল নিয়ে কেন্দ্র ও রিজার্ভ ব্যাঙ্কের লাগাতার সিদ্ধান্ত বদলে যাওয়ার কারণে ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থার প্রতি আমজনতার আস্থা ধাক্কা খেতে পারে বলে তার আশঙ্কা। তাহলে এ নিয়ে সাধারণ মানুষের ভুল ভাঙলে, কী জবাবদিহি করবে মোদী সরকার? তার মতে, এটি ভুল সিদ্ধান্ত কি না, তা নিয়ে আলোচনার কোনো জায়গা নেই। বরং এটি কত বড় ভুল, শুধু তা নিয়ে কথা হতে পারে। প্রথমে কালো অর্থের বিরুদ্ধে যুদ্ধ, তারপরে জাল নোট, সন্ত্রাসে টাকার জোগান বন্ধ করা হয়ে শেষমেশ নগদহীন অর্থনীতির তত্ত্ব (ক্যাশলেস ইকোনমি)। ৮ নভেম্বর নোট বাতিল ঘোষণার পর থেকে বারবার তার কারণ বদলেছে কেন্দ্র। অমর্ত্য সেনের মতে, এ থেকেই স্পষ্ট, শুরুতে কালো অর্থের বিরুদ্ধে যে যুদ্ধের কথা বলা হয়েছিল, তাতে জয় আসবে না বলে মেনে নিয়েছে তারা। কিন্তু হালে কেন্দ্র যে একাধিক বার বলেছে, এই সিদ্ধান্ত আসলে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের? এ বিষয়ে এই অর্থনীতিবিদের স্পষ্ট জবাব, আমি মনে করি না এটা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের সিদ্ধান্ত। এই মুহূর্তে শীর্ষ ব্যাঙ্ক স্বাধীনভাবে কোনো কিছু ঠিক করে বলেই মনে করি না আমি। উল্লেখ্য, এ দিন সংসদীয় কমিটিকে রিজার্ভ ব্যাঙ্কও জানিয়েছে যে, নোট বাতিলের সুপারিশ তাদের হলেও পরামর্শ সরকারের। সম্প্রতি বারবার প্রশ্ন উঠেছে বর্তমান গভর্নর উজিত পটেলের জমানায় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের স্বাধীনতা বিপন্ন কি না। অনেকেরই অভিযোগ, সে সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রর ইশারায়। মনে হয়, মনমোহন সিংহ, রঘুরাম রাজন কিংবা আই জি পটেলের মতো গভর্নর থাকলে, তার কথা অন্তত একবার শুনতে বাধ্য হত কেন্দ্র। তার মতে, জিডিপিকে ঠেলেঠুলে যদি বা তোলা যায়, এই সমস্ত ক্ষতি অপূরণীয়। তার কথায়, শান্তিনিকেতনে গিয়ে দেখেছি, সেখানে আলু চাষ ধাক্কা খেয়েছে।







For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Mudda Jilluhul Aali
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal